fbpx

বাজেটের পর দাম বাড়ায় এসে গেলো নতুন সিগারেট শেয়ারিং অ্যাপ ‘টানো’

২০১৯-২০ অর্থবছরের বাজেটকে সামনে রেখে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়কে দেওয়া এক চিঠিতে সিগারেটের দাম বৃদ্ধির প্রস্তাব করেছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় সুপারিশ করেছে সিগারেটের সর্বনিম্ন দাম ৯ টাকা ধার্য করার। পাশপাশি ১২ টাকার বেনসন ও ৮ টাকার গোল্ডলিফ এবং এদের সমপর্যায়ের সব সিগারেটের দাম বাড়িয়ে যথাক্রমে ২০ ও ১৬ টাকা করার। (খবর: যুগান্তর।)

 

এই খবরে হায় হায় রব উঠেছে বাংলাদেশের ধূমপায়ী মহলে। প্রায় দ্বিগুণ হয়ে যাওয়া দামে কী করে সিগারেট খাবেন তা নিয়ে চিন্তার ভাঁজ পড়েছে সব বয়সী ধূমপায়ীদের কপালে। তবে এই ডিজিটাল যুগে সব সমস্যার ডিজিটাল সমাধান করা যায়, তা সম্ভবত আরেকবার প্রমাণিত হতে যাচ্ছে। জানা গেছে, শীঘ্রই আসছে সিগারেট শেয়ারিংয়ের অ্যাপ ‘টানো’! সিগারেটের দাম বৃদ্ধির সংকটকে মোকাবেলা করতেই এমন অ্যাপ আসছে বলে জানান টানোর তরুণ উদ্যোক্তা। ১১ মে সিগারেটের দাম বৃদ্ধির সম্ভাবনার খবরটি প্রকাশিত হওয়ার কয়েক ঘন্টার মাঝেই এই অ্যাপের খবর প্রকাশিত হয়ে পড়ে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমগুলোয়।

 

কী থাকছে এই অ্যাপে? এমন কৌতূহল সবার মনে। এই কৌতূহল মিটিয়েছেন টানোর সিইও। eআরকিকে দেওয়া এক্সক্লুসিভ সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, ‘এই অ্যাপে স্মোকাররা রেজিস্ট্রেশন করবেন। তারপর স্মোক করার সময় তিনি যদি চান কারো সাথে সিগারেট শেয়ার করতে তাহলে অ্যাপে ঢুকে সিগারেটের ব্র্যান্ড সিলেক্ট করে দিলেই চলবে। জিপিএস দেখে আশেপাশের সবার কাছে নোটিফিকেশন চলে যাবে। অ্যাপে থাকা আশেপাশের যে কেউ তখন রিকুয়েস্ট করতে পারবেন। রিকুয়েস্ট একসেপ্ট হলে তার কাছে গ্রিন সিগনাল চলে যাবে এবং তিনি এসে জয়েন করবেন। এভাবে একজন চাইলে সর্বোচ্চ তিনজনের সাথে একটা সিগারেট শেয়ার করতে পারবেন।’

 

অ্যাপের আরও ফিচার সম্পর্কে জানতে চাইলে সিইও বলেন, ‘আমাদের অ্যাপ একদম বাস্তবের মতোই কাজ করবে। কঠোরভাবে আমরা ফার্স্ট বুক, সেকেন্ড বুক, থার্ড বুক এসব মেনটেন করব। এছাড়াও থাকবে রেটিং-এর ব্যবস্থা। দুই পাফের কথা বলে বেশি টানার মতো গর্হিত অপরাধ করলে নেগেটিভ রেটিং দেওয়া যাবে। আবার কেউ যদি ফিল্টার ভিজিয়ে ফেলে সেখানেও আপনি নেগেটিভ রেটিং দিতে পারবেন।’

 

তবে একেবারেই ভিন্ন একটি শঙ্কার কথা তুলেছেন অনেকে। অ্যাপের মাধ্যমে সিগারেট খেতে গিয়ে নিকটাত্মীয় মুরুব্বি বিশেষ করে ধূমপায়ী বাবার মুখোমুখি হওয়া নিয়ে চিন্তায় আছেন তরুণ-তরুণীরা। এই বিষয়টি নিয়ে ভয় পাওয়ার কিছু নেই বলে জানিয়েছেন টানোর সাইবার নিরাপত্তা কর্মকর্তা। একজন চাইলে আনলিমিটেড মানুষকে ব্লক করতে পারবেন। এছাড়াও ব্লক লিস্টের মানুষজন আশেপাশে থাকলে অ্যাপ থেকে সতর্কতা সিগনাল দিবে বলেও জানান তিনি।

 

আর এই অ্যাপের পুরো পেমেন্ট সিস্টেমই হবে ডিজিটাল। মোবাইল ব্যাংকিং, ডেবিট কার্ড কিংবা ক্রেডিট কার্ড দিয়ে পেমেন্ট করা যাবে। এই ধোঁয়া টানার অ্যাপেও থাকবে প্রোমোকোড ও ডিসকাউন্ট সিস্টেম।

 

অন্যদিকে খবর পাওয়া গেছে, আরেকটি স্মোক শেয়ারিং অ্যাপ ‘ফুঁকো’ও আসছে বাজারে। দুই প্রতিযোগী অ্যাপের উপস্থিতিকে ধূমপায়ীদের জন্য সুখবর হিসেবেই নিচ্ছে।

এটি একটি ফানি পোস্ট । সিরিয়াসলি নিবেন না। শেয়রা করে মজা নিন

কমেন্টসমুহ
সিক্রেট ডাইরি সিক্রেট ডাইরি

Top