দিন দিন ত্বকের উজ্জলতা হারিয়ে কালচে হয়ে যাচ্ছি, কী করতে পারি?

আমার বয়স ২৮ বছর। আমার ত্বক তৈলাক্ত, দিন দিন উজ্জলতা হারিয়ে কালো হয়ে যাচ্ছি। মনে হয়- আমার ত্বক যেন পুড়ে গেছে! কী করতে পারি?

শীতকালে সব চাইতে বেশি ক্ষতিগ্রস্থ হয় আমাদের ত্বক। ত্বকের উপরিভাগ ফেটে যায়, রুক্ষ্ম হয়ে যায়। মরা কোষ জমে ওপরে। এর চাইতেও বেশি ক্ষতি করে শীতের হালকা কিন্তু তেজী রোদ। শীতের রোদ গ্রীষ্মকালের কড়া রোদের চাইতেও বেশি ক্ষতি করে আমাদের ত্বকের। সামান্য রোদ লাগলেই ত্বক পুড়ে যায়, কালো কালো ছোপ পড়ে। আপনি নিশ্চয়ই চাইবেন না শীতের এই ক্ষতিগ্রস্থ ত্বক আপনার শীত পরবর্তী বসন্তকেও নষ্ট করে দিক। সেজন্য এখন থেকেই ত্বকের প্রতি যত্নশীল হতে হবে।

নিয়মিত যত্ন না হয় করলেন। কিন্তু অনেকেই ত্বকের যত্নে পর্যাপ্ত যত্ন করে উঠতে পারেন না। নতুন বছরের আনন্দে কোথাও বেড়াতে যাচ্ছেন, ত্বক দেখাচ্ছে একদম প্রাণহীন ও মলিন। ভালো লাগবে আপনার? একদম নয়! শীতের সময়ে চটজলদি ত্বক উজ্জ্বল করতে প্রয়োজন হয় একটু বিশেষ যত্নের। রইলো বিশেষ কিছু ফেস মাস্কের কথা। যেগুলো প্রথমবার ব্যবহারেই আপনার ত্বকের কালচে ভাব দূর হয়ে আসবে উজ্জলতা। নিয়মিত ব্যবহারে বহুগুনে বেড়ে যাবে আপনার সৌন্দর্য। ত্বকের উজ্জলতা বৃদ্ধিতে ত্বকের প্রতি যত্নবান হয়ে উঠুন। আসুন তবে দেখে নিন কিভাবে উজ্জ্বল করবেন ত্বককে।

কলা ও মধুর ব্যবহার

ভিটামিন এ ত্বকের উজ্জলতা বৃদ্ধির জন্য অত্যন্ত কার্যকরী একটি উপাদান। কলাতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন এ রয়েছে। মধুর পটাসিয়াম ত্বককে উজ্জলতার পাশাপাশি দাগ মুক্ত করে। ত্বকের উজ্জলতা বৃদ্ধিতে কলা ও মধুর মাস্কের জুড়ি নেই।

পদ্ধতিঃ

এই মাস্কটি তৈরি করতে আপনার লাগবে একটি কলা ও ২ টেবিল চামচ মধু। এবং ২/৩ স্লাইস শসা। প্রথমে একটি বাটিতে কলা ছিলে নিয়ে একটি কাঁটা চামচ দিয়ে ভালো মত পিষে নিন। যতটা সম্ভব মিহি করার চেষ্টা করুন। এতে মধু মিশিয়ে নিন ভালো করে। এরপর এই মিশ্রণটি মুখে, হাতে, ঘাড়ে, গলায় ও পায়ে লাগিয়ে নিন। ১৫ মিনিট রেখে দিন। এর পর ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। একটি তাজা শসা স্লাইস করে কেটে নিয়ে তা মুখে, হাতে, ঘাড়ে, গলায় ও পায়ে ঘষে নিন। উজ্জলতার পার্থক্য আপনি নিজেই লক্ষ্য করতে পারবেন। সপ্তাহে ২/৩ বার ব্যাবহারে ত্বক অনেক উজ্জ্বল হবে।

ত্বকের উজ্জলতায় অ্যাসপিরিন

অ্যাসপিরিন ত্বকের উজ্জলতা বৃদ্ধিতে অনেক ভালো কাজ করে। অ্যাসপিরিন ত্বকের উপর থেকে মরা কোষ দূর করে ও রোমকূপের ময়লা দূর করে উজ্জলতা আনে ভেতর থেকে। আসুন দেখে নিই কিভাবে ব্যবহার করবেন অ্যাসপিরিন ত্বকের উজ্জলতায়। এই মাস্কটি রাতে ব্যবহার করলে ভালো ফল পাবেন।

পদ্ধতিঃ
এই মাস্কটির জন্য আপনার লাগবে ২ টি অ্যাসপিরিন ট্যাবলেট, ১ চা চামচ লেবুর রস, ১ টেবিল চামচ হলুদ গুঁড়ো, ১ টেবিল চামচ মধু। প্রথমে একটি বাটিতে অ্যাসপিরিন ট্যাবলেট নিয়ে এতে লেবুর রস দিয়ে ট্যাবলেট গলিয়ে নিন। এরপরে এতে হলুদ গুঁড়ো ও মধু মিশিয়ে নিয়ে পেস্টের মত করুন। এই পেস্টটি মুখে লাগিয়ে রাখুন। ১৫-২০ মিনিট পরে কুসুম গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। মিশ্রণটি মুখ থেকে ভালো ভাবে তুলে ফেলবেন। এরপরে রাতের ক্রিম অথবা অলিভ অয়েল মেখে ঘুমুতে যান। সকালে উঠে মুখ ধুয়ে ত্বকের উজ্জলতা দেখুন। সপ্তাহে ১/২ বার ব্যবহার করতে পারেন এই মাস্কটি।

ভিটামিন সি ট্যাবলেটের ব্যবহার

ভিটামিন সি ত্বককে ভেতর থেকে উজ্জ্বল করে তোলে। যে কোন ভিটামিন সি ফল খাওয়া ত্বকের জন্য অত্যন্ত কার্যকরী। আর দ্রুত ত্বকের উজ্জলতা ফিরিয়ে আনতে ভিটামিন সি ট্যাবলেটের তুলনা নেই। দেখে নিন ভিটামিন সি ট্যাবলেটের ব্যাবহার ত্বকের উজ্জলতায়।

পদ্ধতিঃ
৪/৫ টি ভিটামিন সি ট্যাবলেট, ১ টেবিল চামচ মধু ও ১ চা চামচ অলিভ অয়েল। প্রথমে একটি বাটিতে ভিটামিন সি ট্যাবলেট গুঁড়ো করে নিন। এরপর এতে মধু ও অলিভ অয়েল মিশিয়ে নিন। এরপর এই মিশ্রণটি পুরো মুখে লাগিয়ে নিন। ২০ মিনিট পরে মুখ ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে ২ বার এই মাস্কটি ব্যবহার করে দেখুন। ফল পাবেন।

উজ্জলতা বজায় রাখতে কিছু টিপস

•প্রতিদিন ত্বকে সানস্ক্রিন লাগাবেন।
•প্রতিদিন ৬-৮ গ্লাস পানি পান করুন।
•সারাদিন শেষে ত্বককে স্ক্রাব করুন।
•দিনে ১/২ কাপের বেশি চা/কফি পান করবেন না
•ভালো ময়েসচারাইজার ব্যাবহার করুন।

কমেন্টসমুহ
সিক্রেট ডাইরি সিক্রেট ডাইরি

Top