নকশার আকাশে তারকার ভিড়

মঞ্চে পাশাপাশি দুটো বড় ছবি। দুটোই প্রথম আলোর ক্রোড়পত্র নকশার। একটি উদ্বোধনী সংখ্যার; অন্যটি সর্বশেষ সংখ্যার (পাঠক যেটি আগামীকাল মঙ্গলবার হাতে পাবেন)।

উদ্বোধনী সংখ্যার প্রচ্ছদ মডেল ছিলেন অভিনেত্রী শম্পা রেজা। জিন্স প্যান্টের মডেল হয়েছিলেন তিনি। সেটা ১৯৯৮ সালের কথা।
বছর সতেরো পর আবার জিন্স প্যান্ট পরে সেই বাঁধাই করা সংখ্যাটির সামনে একই ভঙ্গিতে দাঁড়ালেন শম্পা। সবাই অবাক চোখে দেখলেন, আজও তিনি যেন সেই শম্পা রেজাই আছেন। পার্থক্য শুধু, ১৯৯৮ সালে তিনি বিদেশি জিন্সের মডেল হয়েছিলেন। আজ তাঁর পরনে দেশি জিন্স।
ছবি: জাহিদুল করিমআজ সোমবার সন্ধ্যায় রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেলে ইউনিলিভারের সানসিল্ক ব্র্যান্ড নিবেদিত নকশা প্রথম আলো মিলনমেলায় দেখা গেছে এই অভূতপূর্ব দৃশ্য।
এই মিলন মেলা উপলক্ষে অনুষ্ঠানে এসেছিলেন সেকাল একালের অনেক তারকা।
১৯৯৮ সালের ৪ নভেম্বর প্রথম আলোর পথ চলার শুরু থেকে জীবনযাপননির্ভর যে নকশা পাতা বাংলাদেশের মানুষের মন জয় করে এসেছে তার সঙ্গে যুক্ত সব মডেল, শিল্পী, নকশা বিদসহ অনেক তারকা এসেছিলেন আজকের সন্ধ্যায়।
ছবি: জাহিদুল করিমঅনুষ্ঠানের গেট দিয়ে ঢুকতেই পাওয়া গেল একটা উৎসবের আমেজ। সবাই যেন এক পরিবারের সদস্য। কথা-বার্তায় কেটে যাচ্ছিল সময়। হঠাৎ সুসজ্জিত, বর্ণিল আলোর মঞ্চ থেকে ভেসে আসে প্রথম আলোর ফিচার সম্পাদক সুমনা শারমিনের গলা। অনুষ্ঠানের উপস্থাপক ছিলেন তিনি। শুরুতেই বললেন, প্রথম আলো আর নকশার সেই শুরুর কথা। এরপর মঞ্চে শুরু হলো জীবনানন্দের বনলতা সেন কবিতাটিকে ঘিরে তৈরি করা একটি চিত্রনাট্য। এটি ফুটিয়ে তুললেন পূজা সেনগুপ্ত ও তাঁর দল।
এরপর সুমনা শারমীন মঞ্চে ডেকে নিলেন নকশার প্রথম মডেল শম্পা রেজা ও আগামীকালের নকশার মডেল বিদ্যা সিনহা মিমকে। তাঁরা মঞ্চে উঠে শোনালেন তাঁদের অভিজ্ঞতার কথা। মঞ্চে ফ্যাশন ডিজাইনার চন্দ্রশেখর সাহাকেও ডেকে শুনলেন তাঁর অভিজ্ঞতার কথা। মঞ্চে তারানা হালিমও উঠে এলেন।
এরপর হাসিখুশি পরিবারের ধারণার ওপর কোরিওগ্রাফি করা একটি র‌্যাম্পের আয়োজন হলো মঞ্চে। আজরা মাহমুদের নেতৃত্বে এই র‌্যাম্পে শৈশব থেকে প্রৌঢ়—পুরো জীবনযাত্রা উঠে এল। এই র‌্যাম্পে সানসিল্ক নিবেদিত প্রথম আলোর আয়োজনে নকশা মিলনমেলায় এক খুদে মডেল। সোমবার রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেলে এ আয়োজন করা হয়। ছবি: জাহিদুল করিমপ্রথমবারের মতো অংশ নিলেন প্রবীণ অভিনেত্রী দিলারা জামান ও জামাল উদ্দিন।
এর পরই আসেন প্রথম আলোর সম্পাদক মতিউর রহমান। তিনি বলেন, ‘প্রথম আলো সব সময় আধুনিক থাকতে চায়, সময়ের সঙ্গে চলতে চায়। যা কিছু ভালো তার সঙ্গে থাকতে চায়। সত্য কথা বলতে চায়। বাংলাদেশের জন্য নতুন জীবন স্বপ্ন দেখে। একটা নতুন প্রগতিশীল বাংলাদেশ, সহনশীল বাংলাদেশ দেখতে চায় প্রথম আলো। আজকের নকশার মাধ্যমে আমরা সে কথাই বলতে চাই।’
ইউনিলিভার বাংলাদেশের ব্যবস্থাপনা পরিচালক কামরান বকর বলেন, বর্তমান ও ভবিষ্যৎ ট্রেন্ড তুলে ধরে নকশা। এটি এমন একটি প্ল্যাটফর্ম যেখানে সেলিব্রেটি, ডিজাইনার, সাংবাদিক, বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান একসঙ্গে পথ চলতে পারে। আজকের আয়োজন আপনাদের একসঙ্গে করার প্রয়াস। সানসিল্কের পক্ষ থেকে প্রথম আলোকে ধন্যবাদ।
সুমনা শারমীন এরপর একে একে মঞ্চে ডেকে নেন শাকিলা জাফর, অপি করিম, কণা, মেহজাবিনকে। মঞ্চে দুই লাইন গান গেয়ে শোনান কণা ও শাকিলা জাফর। অপি করিম ও মেহজাবিন জানান নকশা নিয়ে তাঁদের অভিজ্ঞতার কথা। এরপর মঞ্চে আসেন কানিজ আলমাস খান, বাঁধন, ইমন, কনক চাঁপা, অপু বিশ্বাস, চন্দনা মজুমদার, মেহরিন, রূপালী চৌধুরী ও ক্রিকেটার নাসির হোসেন। স্বাগতার গানের মূর্ছনায় আনুষ্ঠানিকভাবে শেষ হয় তারা ঝলমলে অনুষ্ঠানটি।

ছবি: জাহিদুল করিমঅনুষ্ঠানে যা যা ছিল:
প্রতি মঙ্গলবার সব পাঠক সকাল বেলা গরম চায়ের সঙ্গে প্রথম আলোর নকশা পড়েন। তবে আজ চিত্রটি একটু ভিন্ন ছিল। গরম কফির সঙ্গে রাতের বেলা অনুষ্ঠানস্থলে থাকা পাঠকেরা হাতে পেলেন সদ্য প্রেস ফেরত নকশা। প্রথম আলোর হকাররাই তা সোনারগাঁও হোটেলের মিলনায়তনে পাঠকের হাতে পৌঁছে দিলেন।

অনুষ্ঠানে হাজির হয়েছিলেন অভিনয় শিল্পী, চিত্রশিল্পী, গায়িকা, রন্ধন শিল্পী, নায়ক, নায়িকা, নকশাবিদ, বিউটিশিয়ান, মডেল, শিশু মডেল।
মিলনায়তনে ঢোকার মুখেই অতিথিদের বেলি ফুলের মালা দিয়ে স্বাগত জানানো হয়। বিকেল বেলায় বেলি ফুলগুলো বলতে গেলে কলি ছিল। রাত হতে হতে তা ফুটন্ত বেলি। আর অতিথিদের অনেকের হাতে, খোঁপায় আগে থেকেই ছিল বেলি। সব মিলে চারদিকে বেলি ফুলের মন পাগল করা সুবাস।
হোটেল সোনারগাঁও এ আলো আঁধারী পরিবেশে বিভিন্ন তারকাদের ঝলমলে উপস্থিতি পুরো পরিবেশটাই পাল্টে দেয়। এর সঙ্গে ছিল প্রথম আলোর ফিচার সম্পাদক সুমনা শারমীনের উপস্থাপনা। তিনি মঞ্চে একেকজনকে ডাকছিলেন, আর যাঁর যাঁর যা গুণ ঠিক সে বিষয়েই প্রশ্ন করছিলেন। মঞ্চে দাঁড়িয়েই অনেকে দুই এক লাইন গানও শোনান। এ সময় মঞ্চের সামনে যাঁরা বসে ছিলেন তাঁরাও সুর মেলান।
মিলনায়তনে মিলনমেলার আনুষ্ঠানিক সমাপ্তি ঘটে। খাবার টেবিলে খাবার হাজির। কিন্তু মিলনমেলায় ভাঙনের সুর নেই। সেলফি তোলায় সবাই ব্যস্ত। আর যেখানে প্রথম আলোর দক্ষ ফটো সাংবাদিকেরা সামনেই, তখন কেই বা আর এই সুযোগ হাত ছাড়া করে। ফলে ক্লিক, ক্লিক!

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Most searched keywords: Insurance, Loans, Mortgage, Attorney, Credit, Lawyer, Donate, Degree, Hosting, Claim, Conference Call, Trading, Software, Recovery, Transfer, Gas/Electricity, Classes, Rehab, Treatment, Cord Blood, domain, music, mobile, phone, buy, sell, classifieds,recipes
Top