ইফতারিতে ভিন্নতা

কলা–খেজুরের স্মুদি
উপকরণ: তরল দুধ ২৫০ মিলিলিটার, পাকা সাগর কলা ২টি, খেজুর ৬টি (বীজ ছাড়ানো), ভ্যানিলা এসেন্স ২-৩ ফোঁটা, বরফ পরিমাণমতো।

প্রণালি: কলা খোসাসহ ২ ঘণ্টা ডিপ ফ্রিজে রেখে বরফের মতো শক্ত করে নিতে হবে। এতে স্মুদি বেশ ঘন হবে। নির্দিষ্ট সময় পর কলা ফ্রিজ থেকে বের করে খোসা ফেলে পাতলা গোল করে কেটে নিন। ওপরে উল্লিখিত সব উপকরণ একসঙ্গে ব্লেন্ডারে দিয়ে ব্লেন্ড করে ঠান্ডা পরিবেশন করতে হবে। ভ্যানিলা এসেন্সের বদলে দারুচিনিগুঁড়া ব্যবহার করলেও খুব সুন্দর সুগন্ধ আসবে স্মুদি থেকে।

সাগু–আমের পায়েসসাগু–আমের পায়েসসাগু–আমের পায়েস
উপকরণ: সাগুদানা আধা কাপ, পাকা আম ২ কাপ (ছোট কিউব করে কাটা), তরল দুধ ১ লিটার, চিনি স্বাদমতো, এলাচিগুঁড়া সামান্য, পেস্তা সাজানোর জন্য।

প্রণালি: সাগু ধুয়ে নিয়ে ১৫ থেকে ২০ মিনিট পানিতে ভিজিয়ে রেখে দুধ আর আধা কাপ পানি দিয়ে সেদ্ধ করে তাতে স্বাদমতো চিনি মিশিয়ে ঘন হয়ে এলে চুলা থেকে নামিয়ে ঠান্ডা করে নিতে হবে। এরপর কেটে রাখা আম (খানিকটা আম সাজানোর জন্য সরিয়ে রাখতে হবে) রান্না করে রাখা সাগুর সঙ্গে মিশিয়ে আবারও চুলায় দিয়ে মিনিট পাঁচেক ফুটিয়ে এলাচিগুঁড়া মিশিয়ে নামিয়ে নিতে হবে। তারপর ঠান্ডা করে ওপরে আম আর পেস্তা দিয়ে সাজিয়ে পরিবেশন করতে হবে।

চিড়ার পোলাওচিড়ার পোলাও
উপকরণ: চিড়া ২৫০ গ্রাম, হাড় ছাড়া মুরগির মাংস ১ কাপ (কিউব করে কাটা), আদা-রসুনবাটা আধা চা-চামচ, ছোট কিউব করে কাটা আলু এক কাপের তিন ভাগের এক ভাগ, ছোট কিউব করে কাটা গাজর এক কাপের তিন ভাগের এক ভাগ, বরবটি ছোট করে কাটা এক কাপের তিন ভাগের এক ভাগ, মটরশুঁটি এক কাপের তিন ভাগের এক ভাগ, পেঁয়াজকুচি এক কাপের তিন ভাগের এক ভাগ, আদাকুচি ১ চা-চামচ, ধনেপাতাকুচি ১ টেবিল চামচ, কাঁচা মরিচের কুচি স্বাদমতো, গোলমরিচগুঁড়া স্বাদমতো, চিনি আধা চা-চামচ, লবণ স্বাদমতো, তেল ২ থেকে ৩ টেবিল চামচ, সেদ্ধ ডিম সাজানোর জন্য।

প্রণালি: আদা-রসুনবাটা, গোলমরিচগুঁড়া আর স্বাদমতো লবণ দিয়ে মুরগির মাংস সেদ্ধ করে নিতে হবে। সবজিগুলোও অল্প লবণ দিয়ে সেদ্ধ করে রাখতে হবে। একটা ঝাঁজরিতে চিড়া নিয়ে তা ধুয়ে পানি ঝরিয়ে রাখতে হবে। প্যানে তেল গরম করে তাতে আদা ও পেঁয়াজকুচি দিয়ে হালকা ভেজে নিন। তার মধ্যে প্রথমে মুরগির সেদ্ধ মাংস দিয়ে একটু ভেজে নিয়ে তারপর এতে সেদ্ধ সবজি, স্বাদমতো লবণ, চিনি আর কাঁচা মরিচের কুচি দিয়ে ৩ থেকে ৪ মিনিট ভেজে নিন। তারপর এতে ধুয়ে রাখা চিড়া আর ধনেপাতাকুচি দিয়ে হালকা হাতে নেড়ে মিশিয়ে নিন। চুলার আঁচ বাড়িয়ে ৩ থেকে ৪ মিনিট ভাজলেই চিড়ার পোলাও তৈরি।

পোড়া আমের শরবত
উপকরণ: কাঁচা আম ৪টি, টালা জিরাগুঁড়া এক চা-চামচের তিন ভাগের এক ভাগ, কাঁচা মরিচ স্বাদমতো (বেশি ঝাল না দেওয়াই ভালো), বিট লবণ স্বাদমতো, চিনি স্বাদমতো।

প্রণালি: তাওয়া গরম করে ওপরে কাঁচা আম দিয়েঘুরিয়ে ঘুরিয়ে সব দিক ভালোভাবে পুড়িয়ে নিতে হবে। তারপর ঠান্ডা করে খোসা ছাড়িয়ে কচলে আমের আঁটি থেকে ক্বাথ আলাদা করে নিয়ে ব্লেন্ডারে দিয়ে পরিমাণমতো ঠান্ডা পানি, টালা জিরার গুঁড়া, স্বাদমতো কাঁচা মরিচ, বিট লবণ ও চিনি দিয়ে ব্লেন্ড করে পরিবেশন করুন। কাঁচা মরিচের বদলে টালা শুকনো মরিচও ব্যবহার করা যেতে পারে। ব্লেন্ডারের বদলে ডালঘুঁটনি দিয়ে ভালোভাবে ঘুঁটেও এই শরবত বানানো যায়।

ভেজিটেবল মমপ্রণালি: ময়দায় লবণ ও তেল মিশিয়ে নিন। প্রয়োজনমতো গরম পানি দিয়ে ভালো করে মাখিয়ে ডো তৈরি করে ফেলুন। পাতলা ভেজা কাপড় দিয়ে ১৫ থেকে ২০ মিনিট ঢেকে রাখতে হবে। একটা ফ্রাইং প্যানে অল্প তেল গরম করে পেঁয়াজ আর আদাকুচি দিয়ে হালকা ভেজে নিন। রসুনকুচি দিয়ে একটুখানি ভেজে নিন। এবার তাতে গাজর আর বাঁধাকপির কুচি দিয়ে চুলার আঁচ বাড়িয়ে ভেজে নিন। সয়া সস, স্বাদমতো লবণ আর গোলমরিচের গুঁড়া দিয়ে নেড়ে নামিয়ে ফেলতে হবে। চাইলে এতে ধনেপাতাকুচি বা পেঁয়াজপাতার কুচিও দেওয়া যেতে পারে। এরপর মেখে রাখা ডো থেকে ছোট ছোট লেচি কেটে লুচির আকারে বেলে নিয়ে তার মধ্য বরাবর ভেজে রাখা সবজির পুর দিয়ে দিন। মমর আকারে তৈরি করে নিতে পারেন। এরপর স্টিমারে পানি দিয়ে চুলায় বসিয়ে তা গরম হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। পানি ফুটে উঠলে একটু ফাঁকা করে করে মমগুলো সেদ্ধ হওয়ার জন্য বসিয়ে ঢাকনা দিয়ে ঢেকে আরও ১০ থেকে ১২ মিনিট রাখুন। নির্দিষ্ট সময় পর নামিয়ে নিয়ে ঝাল টমেটো সসের সঙ্গে পরিবেশন করতে হবে।

দই–ওটসদই–ওটসদই–ওটস
উপকরণ: ওটস ১ কাপ, মিষ্টি দই আধা কেজি, তেঁতুলের ক্বাথ স্বাদমতো, টালা শুকনা মরিচের গুঁড়া স্বাদমতো, টালা জিরার গুঁড়া আধা চা-চামচ, আস্ত সরিষা ১ চা-চামচ, কারিপাতা ৭ থেকে ৮টি, পুদিনাপাতাবাটা ১ চা-চামচ, বিট লবণ স্বাদমতো, তেল ২ টেবিল চামচ।
প্রণালি: একটা হাঁড়িতে ২ কাপ পানি নিয়ে তাতে ১ কাপ ওটস দিয়ে দিন। ৫ থেকে ৬ মিনিট রান্না করে চুলা থেকে নামিয়ে ঠান্ডা করে নিন। অপর একটা পাত্রে দই, স্বাদমতো তেঁতুলের ক্বাথ, টালা শুকনা মরিচ, জিরাগুঁড়া, পুদিনাপাতাবাটা আর বিট লবণ মিশিয়ে নিন। সেদ্ধ ওটস মিশিয়ে পরিবেশন পাত্রে নামিয়ে নিতে হবে। একটা প্যানে অল্প তেল গরম করে আস্ত সরিষা আর কারিপাতার ফোড়ন দিয়ে দই–ওটসের মিশ্রণের সঙ্গে হালকা হাতে মিশিয়ে নিন। ওপরে অল্প তেঁতুলের ক্বাথ, পুদিনা আর টালা মরিচের গুঁড়া ছড়িয়ে সাজিয়ে পরিবেশন করতে হবে।

 

কমেন্টসমুহ
সিক্রেট ডাইরি সিক্রেট ডাইরি

Top