তাঁকে মজা করে বলি যে আমি কখনো মা হব না…

প্রশ্নটি আমাদের ফেসবুক পেজে করেছেন : নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন তরুণী

আমি এবার এইচ এস সি দিয়েছি। একটা ছেলেকে খুব ভালবাসতাম। ওর পরিবার এর অনেকেই আমাদের সম্পর্কটা জানতো। এর আগে ও ২ টা সম্পর্ক করতো। কিন্তু ফান করতো। আমার সাথে সম্পর্ক হবার পর ও নাকি ওদের সাথে আর কথা বলেনি।। যদিও এটা নিয়ে কখনো কোন কথা আর বলিনি। বিশ্বাস করতাম অন্ধের মত।

১ বছর পর ও আমার সাথে শারিরীক সম্পর্ক করতে চাইল। কিন্তু বিয়ের আগে এটা করতে চাইনি বলে না বলে দিতাম। পা ধরে বসে থাকতো কান্নাকাটি করতো, আর বলতো ওকে বিশ্বাস করি না। কিন্তু তাও আমি রাজি হতাম না। একদিন ওর ফোনে কিছু মেয়ের সাথে মেসেজ দেখলাম। জিজ্ঞাসা করলাম এরা কারা।। বললো ফ্রেন্ড। ফ্রেন্ কে কেউ বাবু, জান বলে ডাকে জানতাম নাহ। তার মাঝে একজন এর সাথে এমন কিছু মেসেজ যা কেবল স্বামী-স্ত্রী ই করতে পারে, বন্ধুরা না। আমি কখনোই এত ফ্রি ছিলাম না ওর সাথে। ওকে বললাম এদের সাথে কথা বন্ধ না করলে আমাদের সম্পর্ক থাকবে না। ও বলল যদি ওর সাথে শারীরিক সম্পর্ক করি তাহলেই ও আর এদের সাথে কথা বলবে না। আর তা না হলে ও এই রিলেশন রাখবে না, যেখানে কেউ ওকে বিশ্বাস করে না। এরপর থেকে মেসেজ ফোন আমি না দিলে কিছুই দিত না ও। আর সাত-পাচ ভেবে ওর সাথে ব্রেকআপ করে দিলাম।

ওকে ভুলবার জন্য ফেইসবুক আইডি খুললাম। সবার সাথেই কথা বলা শুরু করলাম। তার মাঝে একজন এর সাথে বেশিই কথা হত। ৩ মাস পর উনার জোরাজুরিতে ফোন নাম্বার দিলাম। ফোনে তেমন কথা হতো না। ৪/৫ দিন পর একদিন হত। তবে viber এ ম্যাসেজিংটা বেশি হত।। তার প্রেমিকার এর সাথে ৪ বছর আগে ব্রেকআপ হয়েছে। সে ইঞ্জিনিয়ারিং এর ৬ষ্ঠ সেমিস্টার এ পড়ে। ১ মাস ধরে সে আমাকে ভালবাসি বললেও আমি মজা করে উড়িয়ে দেই। সেদিন ও সে যখন সিরিয়াসভাবে বলছিল তখন আমি তাকে মজা করে বলি আমি কখনো মা হব না। আর আমার আগের বয়ফ্রেন্ড এর সাথে আমার শারীরিক সম্পর্ক হয়েছে। সে ৩০ মিনিট পর উত্তর দিয়েছে তার এসবে কোন সমস্যা নেই। যদি মা না হই তাহলে বাচ্চা অ্যাডোপ্ট করবে আর সবাইকে বলবে তার সমস্যা যাতে কেউ আমাকে দোষ না দেয়। আর এখন নাকি অনেকেরই শারীরিক সম্পর্ক হয় তাই বলে কি তারা পচে যায়। সে আমাকে ভালবাসে আর আমাকে হারাতে পারবে না।

কথাগুলো সিনেমার মতই মনে হল। তাঁকে বললাম আমার থেকে ভালো মেয়ে সে পাবে কিন্তু সে বলে পাবো কিন্তু আমার মত সত্যি কেউ বলবে না। তাছাড়া সে আমাকে সব জেনেই ভালবাসতে চায়। (আমার বলা সব কথাই মিথ্যা ছিল যাতে সে আমাকে কতোটা ভালবাসে তা জানতে পারি) এখন আমাকে ৭ দিন সময় দিয়েছে তাকে উত্তর দিয়ার জন্য। তাকে ভালবাসি কিনা এখনো বুঝতে পারছি না, তবে তার সাথে যখন কথা বন্ধ হয় তখন নিজের অজান্তেই চোখের পানি ঝরে। পরে আবার হাসি, আর বলি কাঁদছি কেনো। কিন্তু এখন আমি বুঝতে পারছিনা কী করবো। কী করা উচিৎ আমার? কী উত্তর দিব তাকে? কী উত্তর দেয়া উচিৎ আমার?

 

পরামর্শ

দেখো আপু, আমি মনে করি না তোমার এই মুহূর্তে সম্পর্কে জড়ানো উচিত হবে। যে সম্পর্কটি ভেঙে ফেলেছো, সেই ঠিক কাজই করেছো। ছেলেটির উদ্দেশ্য ভালো ছিল না। আর যে সম্পর্কে জোর করে কিছু আদায় করা হয়, সেটা কোনদিনই সম্পর্ক হতে পারে না।

এই একই কারণে এই সম্পর্কেও জড়ানো উচিত হবে না তোমার। কারণ ছেলেটি তোমাকে ৭ দিন সময় বেঁধে দিয়ে মানসিক চাপ প্রয়োগ করছে। তাছাড়া তুমি বয়সে অনেকটাই ছোট। তাঁর তাড়াহুড়া দেখে মনে হচ্ছে সে সম্পর্ক করার জন্য খুবই অস্থির, কেননা প্রাক্তন প্রেমকে ভুলতে হবে। তোমার মাঝেও এই অস্থিরতা আছে। একটা জিনিস মনে রাখবে আপু, ভালোবাসা এত সস্তা জিনিস না যে হুট করে হয়ে যাবে। তাছাড়া তুমি নিজেই তো বুঝতে পারছো না যে তাঁকে ভালোবাসো কিনা।

তাই, তাঁকে মানা করে দাও। বলে দাও যে তুমি এখন আর কোন সম্পর্কে জড়ানোর কথা ভাবছো না। তুমি আর প্রেম করবে না, একবারে বিয়ে করবে। তিনি যদি সত্যিই তোমাকে ভালোবেসে থাকেন, তাহলে নিজের ক্যারিয়ার গুছিয়ে যেন বিয়ের প্রস্তাব পাঠান। তোমার মা বাবা মেনে নিলে তবেই তুমি আছো। নাহলে নেই।

তোমার এই কথা শুনে যদি ছেলেটি নিজের ক্যারিয়ারের দিকে মন দেয় এবং তোমাকে প্রেসার দেয়া বন্ধ করে, এবং রাজি হয় বাসায় বিয়ের প্রস্তাব পাঠাতে, তখনই কেবল এই ব্যাপারে ভেবে দেখতে পারো তুমি। তবে এখন নয়, পরীক্ষার পর।

 

 

 

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Most searched keywords: Insurance, Loans, Mortgage, Attorney, Credit, Lawyer, Donate, Degree, Hosting, Claim, Conference Call, Trading, Software, Recovery, Transfer, Gas/Electricity, Classes, Rehab, Treatment, Cord Blood, domain, music, mobile, phone, buy, sell, classifieds,recipes
Top
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com