‘নিরামিষ মুরগি’, তাই বলে বিস্বাদ নয় মোটেই!

মাংসে ভয় পান? কোলেস্টেরল আর আনুষঙ্গিকের লাল চোখ দেখিয়ে রাখছেন ডাক্তারবাবু? অন্য দিকে আবার পোলট্রির মুগির ঠ্যাং চিবিয়ে ক্লান্ত হয়েও পড়েছেন। নিরামিষ খেতে গেলে কীভাবে যেন মনে পড়ে যায়, একটা সময়ে আপনিও মাংসাশী ছিলেন। হৃতগৌরবকে ফিরে পেতে ইচ্ছে করে?

এই সমস্ত জটিল সমস্যার সমাধানে এগিয়ে এসেছে লন্ডনের এক রোস্তোরাঁ। ‘দ্য টেম্পল অফ হ্যাকনি’ নামে এই সদ্য খোলা রেস্তোরাঁর অন্যতম প্রধান খাবারটির নামই ‘ভেগান চিকেন’, যার বাংলা করলে দাঁড়ায় ‘নিরামিষ মুরগি’। শুনতে ‘সোনার পাথরবাটি’ বা ‘কাঁঠালের আমসত্ব’-র মতো লাগলেও, এই খানাটিকেই তাঁদের মেনুকার্ডের শীর্ষে রেখেছেন তাঁরা। আর তাই নিয়ে রীতিমতো ক্রেজ দেখা দিয়েছে লন্ডনের ক্রমবর্ধমান নিরামিষাশীদের মধ্যে।

ইস্ট লন্ডনের এই রেস্তোরাঁয় নিরামিষ মুরগির ‘উইঙ্গস’, ‘পপকর্ন’ , বার্গার— সবই পাওয়া যাচ্ছে। কেতা অনেকটাই কেন্টাকি ফ্রায়েড চিকেনের মতো। কিন্তু প্রশ্ন এখানেই, এই ‘নিরামিষ মুরগি’ বস্তুটি ঠিক কী?

না, এটি কোনও নতুন আবিষ্কার নয়। এই খানাটির মূল ইনগ্রেডিয়েন্ট ‘সিয়াতেন’ নামের এক পদার্থ। যার উৎস হল গম। ষষ্ঠ শতকের চিনে খাদ্য হিসেবে বস্তুটির জনপ্রিয়তা ছিল। নিরামিষাশী বৌদ্ধ সন্ন্যাসীরা বিশেষ করে এই খাবার পছন্দ করতেন। পরে জাপানে সিয়াতেন বিশেষ ভাবে আদৃত হয়। মার্কিন দেশে সেভেন্থ ডে অ্যাডভেন্টিস্ট চার্চও ১৯ শতকে এই নির্মল খাবারকে তুলে ধরে।

দূরপ্রাচ্যের বিভিন্ন ডিশে সিয়াতেনের ব্যবহার অনাবিল হলেও, পশ্চিমে তেমন বাহারি খানা তৈরি হত না এ দিয়ে। সেই অভাব পূরণ করল ‘দ্য টেম্পল অফ হ্যাকনি’। এ দেশের নিরামিষভোজীদের জন্য কি সাগর পেরবে সিয়াতেন?

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Most searched keywords: Insurance, Loans, Mortgage, Attorney, Credit, Lawyer, Donate, Degree, Hosting, Claim, Conference Call, Trading, Software, Recovery, Transfer, Gas/Electricity, Classes, Rehab, Treatment, Cord Blood, domain, music, mobile, phone, buy, sell, classifieds,recipes
Top
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com