মেসিকে সেরা প্রমাণে এক্সজি-বিল্ড থিওরি!

এই মুহূর্তে বিশ্বের শীর্ষ ক্রীড়াবিজ্ঞানীদের একজন মেসিকে সেরা প্রমাণ করতে হাজির করেছেন এক্সজি-বিল্ড নামের একটি পরিসংখ্যান-তত্ত্ব, যেখানে উঠে এসেছে মেসি শুধু গোল করেন বা করান না; আরও অনেক কিছুই করেন

লিওনেল মেসিকে আপনার সেরা ফুটবলার মনে নাও হতে পারে। হয়তো আপনার চোখে পৃথিবীর সেরা খেলোয়াড় ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। তবে ভুল করেও এই কথা সাইমন ব্রান্ডিশের কানে তুলতে যাবেন না। বিশ্বখ্যাত এই ক্রীড়াবিজ্ঞানীর মতে পৃথিবীর সেরা একজনই। আর ‘মেসি যত দিন বেঁচে আছেন তাঁর মতো আর কেউ হবে না’।

তবু যদি আপনার মনে হয় মেসি নয়, সেরা অন্য কেউ, আপনার উদ্দেশে ব্রান্ডিশের জবাব, ‘আপনি তখনই মেসি বাদে অন্য কাউকে সেরা বলতে পারবেন, যদি মেসি পা ভেঙে এক বছর ধরে পড়ে থাকেন, কিংবা ধরুন মেসি মরেই গেছেন; অথবা আপনি মিথ্যা বলছেন।’

বিজ্ঞানীদের তত্ত্ব আবেগ দিয়ে চলে না। তা প্রমাণ করতে হয়। ব্রান্ডিশ মেসিকে সেরা প্রমাণ করতে দুটি পরিসংখ্যান হাজির করলেন। সিএনএনকে ব্রান্ডিশ বলেছেন, এই মুহূর্তে মেসি প্রতি ৪৮ মিনিটে একটি গোল করছেন বা কাউকে দিয়ে করাচ্ছেন। অর্থাৎ প্রতি ম্যাচে মেসি দুটি করে গোল বা অ্যাসিস্ট করেন। যে পরিসংখ্যানে মেসির ধারেকাছে কেউ নেই।

আবার গোল করা বা করানোতেও শুধু নয়, মেসির আসল জাদু লুকিয়ে আছে খেলাটা বানিয়ে তোলায়। যদিও গোল করা বা করানোই সাধারণত চোখে পড়ে। কিন্তু বার্সেলোনার মতো দল খেলাটা গুছিয়ে আক্রমণে যায়। ফলে প্রতিটা গোলের পেছনে অনেকের অবদান থাকে। এই অবদান বের করার উপায় হলো এক্সজি-বিল্ড নামের একটি পরিসংখ্যান-তত্ত্ব।

এই পরিসংখ্যানে যিনি গোল করেছেন আর যিনি গোল করতে সহায়তা করেছেন তাঁদের বাদ দিয়ে বাকি সবার অবদান মাপা হয়। ধরা যাক একজন গোলরক্ষক প্রথমে একজন ডিফেন্ডারকে বল ঠেলেছিলেন। সেই ডিফেন্ডার বল দিয়েছিলেন এক মিডফিল্ডারকে। মিডফিল্ডার থেকে উইঙ্গার, সেখান থেকে গোলমুখে থাকা কোনো খেলোয়াড়কে বল ঠেলা হলো। তারপর এল গোল। এক্সজি-বিল্ড তত্ত্বে অ্যাসিস্টকারী উইঙ্গার আর গোলদাতা বাদে বাকি সবার অবদান পরিমাপ করা হয়। এখানে গোলরক্ষক, ডিফেন্ডার, মিডফিল্ডার পয়েন্ট পাবেন, শেষের দুজন নয়।

মেসি যে অবিশ্বাস্য হারে গোল করেন এবং গোলে সহায়তা করেন; তাতে সাধারণ হিসাব বলে, এক্সজি-বিল্ডে মেসির তেমন পয়েন্ট আসার কথা নয়। এলেও যেকোনো বিল্ডআপে শুরুর দিকে যাঁরা থাকবেন, তাঁদের পয়েন্ট মেসির চেয়ে বেশি হবে। কিন্তু ব্রান্ডিশ হিসাব করে দেখিয়েছেন, এখানেও মেসির স্কোর অনেক বেশি!

২০১৭-১৮ মৌসুমের তথ্য বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে, মেসির এক্সজি-বিল্ড স্কোর চেলসির এডেন হ্যাজার্ড, আর্সেনালের মেসুত ওজিল কিংবা টটেনহামের ক্রিস্টিয়ান এরিকসেনের চেয়েও বেশি। এই পরিসংখ্যানে মেসি পেছনে ফেলেছেন রোনালদো, মোহাম্মদ সালাহ ও নেইমারকেও।

মেসির গোলসংখ্যা, মেসির অ্যাসিস্ট, এর সঙ্গে মেসির এক্সজি-বিল্ড স্কোর…সবই বিবেচনায় নিয়ে ব্রান্ডিশ আপনাকে পাল্টা প্রশ্ন ছুড়ে দিচ্ছেন, ‘কে সেরা সেই প্রশ্নে যুক্তিতর্কের কোনো সুযোগ কি আছে?’

কমেন্টসমুহ
সিক্রেট ডাইরি সিক্রেট ডাইরি

Top