ক্রিকেট প্রতিভার সন্ধান

ছোটবেলা থেকেই ক্রিকেটের সঙ্গে তাঁদের ভীষণ সখ্য। নিজের প্রতিভা আর কঠোর পরিশ্রম দুই মিলিয়ে দেশের হয়ে আলো ছড়িয়েছেন। তাঁরা চান, আরও প্রতিভা উঠে আসুক দেশের আনাচকানাচ থেকে। এ স্বপ্ন নিয়ে নিজ উদ্যোগে গড়ে তুলেছেন ক্রিকেট একাডেমি। কথা হলো এ রকম তিন ক্রিকেটারের সঙ্গে, যাঁরা নিজ উদ্যোগে প্রতিষ্ঠা করেছেন ক্রিকেট একাডেমি।

বাংলাদেশের ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা আট বছর আগে নড়াইলে নানার নামে প্রতিষ্ঠা করেন ‘আতাউর রহমান ক্রিকেট একাডেমি’। এখানে নিয়মিত অনুশীলন করছেন প্রায় ৫০ তরুণ ক্রিকেটার।
মাশরাফি বিন মুর্তজামাশরাফির একাডেমি করার মূল উদ্দেশ্যই ছিল নড়াইল থেকে প্রতিভাবান ক্রিকেটারদের তুলে নিয়ে আসা। বললেন, ‘নড়াইলের ছেলেদের ক্রিকেট খেলার সুযোগ করে দিতেই একাডেমিটা করা। অনেকের ব্যাট-বল-প্যাড কেনার আর্থিক সংগতি নেই। লিগ-টিগও হচ্ছিল না নিয়মিত। এ কারণে নিজেই উদ্যোগী হলাম।’
একাডেমিতে কী কী সমস্যা আছে জানতে চাইলে মাশরাফি বললেন, ‘আসলে যতটুকু সম্ভব চেষ্টা করছি। ছেলেরা যাতে অনুশীলনটা ঠিকঠাক করতে পারে, সে চেষ্টা করছি। আর একাডেমি তো এখনো বড় করে করতে পারিনি। যদি করতে পারি, তখন হয়তো বুঝতে পারব আরও কী কী প্রয়োজন। ইচ্ছে আছে, ক্রিকেট ছাড়ার পর একাডেমিতে আরও বেশি মনোযোগ দেওয়ার।’
একাডেমি নিয়ে বড় স্বপ্নই দেখেন মাশরাফি। তিনি বললেন, ‘আশা করি, আরও খেলোয়াড় বেরিয়ে আসবে নড়াইল থেকে, সুযোগ পাবে জাতীয় দলে। এখনো কিছু সম্ভাবনাময়ী খেলোয়াড় আছে। ঠিকঠাক পরিচর্যা করতে পারলে অনেক দূর যাবে।’
ইমরুল কায়েস প্রতিষ্ঠিত সাগর ক্রিকেট একাডেমিতে চলছে প্রশিক্ষণজাতীয় টেস্ট দলের অন্যতম সদস্য ইমরুল কায়েস বছর ছয়েক আগে নিজ জেলা শহর মেহেরপুরে প্রতিষ্ঠা করেছেন একাডেমি। এটি প্রতিষ্ঠার উদ্দেশ্য বর্ণনা করলেন এভাবে, ‘যখন খেলা শুরু করলাম, তখন মেহেরপুরে কিছুই ছিল না। রাজশাহীতে গিয়ে অনুশীলন করতাম কোচ সাদ (জামিলুর রহমান) ভাইয়ের কাছে। ছুটিতে যখন বাড়িতে যেতাম, অনুশীলনের কোনো ব্যবস্থা থাকত না। অনেক প্রতিভাবান ক্রিকেটার ছিল। কিন্তু সুযোগ-সুবিধার অভাবে অনুশীলন করতে পারত না। অনেকে বলল, কিছু একটা করেন। ভাবলাম ছোট পরিসরেই শুরু করা যাক। আস্তে-ধীরে বড় হবে।’
ইমরুল যেহেতু জাতীয় দলে খেলেন, বেশির ভাগ সময়ই থাকতে হয় ঢাকায়। তাই এটি দেখভালের দায়িত্ব দিয়েছেন এলাকার বড় ভাই মনিরুজ্জামানকে। একাডেমির কার্যক্রম প্রথম শুরু হয়েছিল মেহেরপুর জেলা স্কুলের মাঠে। পরে সরিয়ে নেওয়া হয় মেহেরপুর কলেজ মাঠে।
তবে ইমরুল জানালেন, কোনো ভালো পৃষ্ঠপোষক পেলে তরতরিয়ে এগিয়ে যেত একাডেমিটা, ‘একটা একাডেমির জন্য জনবল, ক্রিকেটের নানা আনুষঙ্গিক বিষয়াদি কিছু লাগে। তাই আর্থিক ব্যাপারটাও ভাবতে হয়। একাডেমিতে যারা অনুশীলন করে, তাদের কাছ থেকে কোনো টাকাপয়সা নেওয়া হয় না।’
তবে সমস্যার মধ্যেও কিছু আশার দিক খুঁজে পান ইমরুল, ‘সমস্যা তো থাকবেই। তবুও এগিয়ে যেতে হবে। ক্রিকেট বোর্ড ম্যাট দিয়েছে। ওটা দিয়েই অনুশীলন করানো হয়। যখন দেশের বাইরে খেলতে যায়, বোলিং মেশিন কিংবা এ ধরনের যন্ত্র কিনে ওখানে দিই। এ ছাড়া আমার ব্যবহৃত ব্যাট ও অন্যান্য আনুষঙ্গিক জিনিসগুলোও দিয়ে দিই।’
নতুন ক্রিকেটারদের প্রশিক্ষণে আফতাব আহমেদএ মুহূর্তে ৫০ জনের মতো নিয়মিত অনুশীলন করছে একাডেমিতে। কয়েকজন খেলছে বিভিন্ন লিগে। ইমরুল বলেন, ‘এখানকার দুজন ঢাকা লিগে খেলছে। আশা করি, প্রতিবছর আরও দু-চারজন ক্রিকেটার খেলবে ঢাকা লিগে। দেখেন, মুস্তাফিজ কিন্তু প্রত্যন্ত এলাকা থেকেই উঠে এসেছে। এমন অনেক প্রতিভা ছড়িয়ে-ছিটিয়ে রয়েছে দেশের আনাচকানাচে। সুযোগ-সুবিধার অভাবে উঠে আসতে পারছে না। এমন একডেমি থাকলে কিন্তু আরও প্রতিভা উঠে আসবে।’ ইমরুলের ইচ্ছা, ক্রিকেট ছাড়ার পর একাডেমিকে আরও বড় পরিসরে গড়ে তোলার।
মাশরাফি-ইমরুলের মতো অবশ্য আফতাব আহমেদ এখন জাতীয় দলে নেই। তবে তিনি এখনো আছেন ক্রিকেটের সঙ্গেই। কয়েক মাস আগে চট্টগ্রাম শহরে চালু করেছেন ক্রিকেট একাডেমি। প্রায় ১০০ জনের মতো নিয়মিত অনুশীলন করছেন তাঁর একাডেমিতে। একাডেমিতে কাজ করছেন মোট তিনজন প্রশিক্ষক। অনুশীলন করানো হয় নগরের মহিলা কমপ্লেক্স ও নাসিরাবাদ বয়েজ স্কুল মাঠে। একাডেমিতে প্রায় সব ধরনের সুযোগ-সুবিধা রয়েছে বলে জানালেন আফতাব।
তবে একাডেমি নিয়ে বেশ হ্যাপাই পোহাতে হচ্ছে তাঁকে, ‘খেলোয়াড় হিসেবে যখন অনুশীলন করেছি, এতটা বুঝিনি। এখন বুঝি, একাডেমি করতে কী কষ্টটা করতে হয়! সবকিছুই নিজের আয়োজন করতে হয়।’
মাশরাফি-ইমরুলের একাডেমির মাঠের সমস্যা না থাকলেও আফতাবকে অবশ্য এ সমস্যাটা বেশ ভোগাচ্ছে। বললেন, ‘চট্টগ্রাম শহরে মাঠের বড্ড অভাব। তবুও স্বপ্ন দেখি চট্টগ্রামের আরও প্রতিভা খেলবে দেশের হয়ে।’
এর বাইরেও অনেক ক্রিকেটারই একাডেমি প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ নিয়েছেন। বলতে হবে খালেদ মাসুদ, রাজীন সালেহ কিংবা হান্নান সরকারের কথা। সবাই চেষ্টা করছেন দেশের প্রত্যন্ত এলাকা থেকে আরও প্রতিভাবান ক্রিকেটারদের তুলে নিয়ে আসতে। এ প্রচেষ্টাগুলো নিশ্চয় সাফল্যের মুখ দেখবে নিকট ভবিষ্যতে।

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Most searched keywords: Insurance, Loans, Mortgage, Attorney, Credit, Lawyer, Donate, Degree, Hosting, Claim, Conference Call, Trading, Software, Recovery, Transfer, Gas/Electricity, Classes, Rehab, Treatment, Cord Blood, domain, music, mobile, phone, buy, sell, classifieds,recipes
Top