যে লক্ষণগুলো নিশ্চিত করবে নিজেকে সুস্থ ভাবলেও আপনি পুরোপুরি সুস্থ নন!

আচ্ছা আপনি কি সুস্থ আছেন? এই প্রশ্নের উত্তরে যাদের শারীরিক সমস্যা চোখে দেখা যাচ্ছে না তাদের বেশীর ভাগই উত্তর দেবেন, ‘হ্যাঁ, সুস্থ আছি’। কিন্তু আসলেই কি আপনি সুস্থ আছেন? অনেকের মতে সুস্থতা মানসিক ব্যাপার। আর তাই অসুস্থতার লক্ষণ অবহেলা করে নিজের মনকে সুস্থ আছি বলে প্রবোধ দিয়ে চুপচাপ বসে থাকেন অনেকেই। কিন্তু এতে তো লাভের পরিবর্তে ক্ষতিই বেশি হচ্ছে। এমন অনেক লক্ষণ রয়েছে যার মাধ্যমে আপনার দেহ আপনাকে জানান দিচ্ছে আপনি সুস্থ নন, কিন্তু আপনি নিজে মানছেন না অথবা আপনি বুঝতেই পারছেন না লক্ষণগুলোকে। সত্যিই এমন কিছু লক্ষণ হয়তো আপনি অবহেলা করছেন যা নিশ্চিত করবে আপনি নিজেকে যতোটা সুস্থ ভাবছেন আসলে আপনি ততোটা সুস্থ নন।

১) আপনি কি রাতে ৬-৭ ঘণ্টা নির্বিঘ্নে ঘুমুতে পারেন? রাত বলতে ২ টা/৩ টা নয়, রাত ১২ টার পর থেকে যদি একেবারেই ঘুম না আসে ৪ টা/৫ টা পর্যন্ত এটাকে স্বাভাবিক ভাবে নেবেন না। যতোই আপনি কম্পিউটারে কাজ করুন না কেন, আপনি আসলে কাজের জন্য জেগে নেই। আপনি ঘুমাতে পারছেন না বলেই জেগে রয়েছেন। অনিদ্রা, নির্ঘুম প্রমাণ করে আপনার দেহে কার্টিসোল অনেক বেশি বেড়ে গিয়েছে যা আপনাকে ঘুমাতে বাঁধা দিচ্ছে। এর থেকে বিষণ্ণতা, অনিদ্রা এমনকি মানসিক সমস্যা শুরু হতে পারে। সুরতাং সাবধান।

২) আপনাকে খাটো দেখাচ্ছে কথাটি শুনে অনেকেই হেসে ফেলতে পারেন, কিংবা আয়নায় নিজেকে দেখে অনেকেই খাটো মনে হলেও পাত্তা দেন না। কিন্তু বিষয়টি কিন্তু মোটেও অবহেলার নয়। আপনার হাড় অস্টেওপোরোসিসের কারণে ডিজেনারেটেড হচ্ছে যার কারণে আপনি ধীরে ধীরে খাটো হয়ে যাচ্ছেন। সুতরাং যদি নিজেকে খাটো মনে হয় তাহলে অবহেলা না করে সঠিক পরিমাপ করে বের করুন সমস্যা তারপর ডাক্তারের শরণাপন্ন হোন।

৩) আপনি যদি মোটা হতে থাকেন তখন আশেপাশের সকলেরই ধারণা হবে আপনি বেশি খান এবং শারীরিক পরিশ্রম করেন না। কারো কথা কানে তুলবেন না, নিজে দেখুন আপনার খাওয়া বেড়েছে কিনা এবং আপনার আসলেই শারীরিক পরিশ্রম বাদ পড়ছে কিনা। যদি কোনটাই না হয় তাহলে জেনে রাখুন আপনার হরমোনাল সমস্যার কারণে আপনি মুটিয়ে যাচ্ছেন। সুতরাং ডাক্তারের শরণাপন্ন হোন।

৪) সামান্য একটু অনিয়মেই কি আপনি ফ্লু, ছোটখাটো সর্দি-কাশিতে আক্রান্ত হয়ে পড়েন? অনেকেই ভাবেন ঋতু পরিবর্তন এবং আবহাওয়ার কারণে এমনটি হচ্ছে। হ্যাঁ, এটা সত্যি কিন্তু আপনার আশেপাশের সকলেই কি আক্রান্ত হচ্ছেন? যদি না হয়ে থাকে তাহলে বুঝে নেবেন সমস্যা আপনার মধ্যে। আপনার দেহের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা এতোই কম যে, আপনি যে কোনো সাধারণ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে পড়েন। দ্রুত ডাক্তারের পরামর্শ গ্রহন করুন।

সূত্রঃ mindbodygreen

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Most searched keywords: Insurance, Loans, Mortgage, Attorney, Credit, Lawyer, Donate, Degree, Hosting, Claim, Conference Call, Trading, Software, Recovery, Transfer, Gas/Electricity, Classes, Rehab, Treatment, Cord Blood, domain, music, mobile, phone, buy, sell, classifieds,recipes
Top